ছত্তিশগড়ের প্রথম দফার নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হল সঙ্গে খতম হয় মাওবাদীরা।।

ভোটগ্রহণ শেষ হল ছত্তিশগড়ের মাওবাদী অধ্যুষিত ১৮টি আসনের। বস্তার, সুকমা, দান্তেওয়াড়া, কাঙ্কের, বিজাপুর, নারায়ণপুর, কোন্দাগাঁও, রাজনন্দগাঁও এই আটটি জেলায় আজ ভোটগ্রহণ হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মোট ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে। ১০টি আসনে সকাল ৭টা থেকে শুরু হয় ভোটগ্রহণ। বাকি ৮টি আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয় ৮টা থেকে।

বোমা-গুলির আওয়াজ আর বারুদের গন্ধ পিছু ছাড়ল ছত্তিশগড়ের প্রথম দফার নির্বাচনে। মাওবাদী অধ্যুষিত ছত্তিশগড়ে প্রথম পর্যায়ের ভোটগ্রহণ শেষ হল। তবে ভয়কে জয় করে ভোটের চিত্রও এদিন দেখা গেল ছত্তিশগড়ের ভোটকেন্দ্রগুলিতে। একদিকে যখন গুলির আওয়াজ চলছে, তখন ভোটকেন্দ্রে এসে ভোট দিলেন ছত্তিশগড়ের ভোটদাতারা।

দিনের শেষে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে, ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে প্রথম দফায়। প্রাথমিক এই হিসাব জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে উমেশ সিনহা জানান, এই সংখ্যাটা পরে আপডেট হবে। অর্থাৎ ভোট শতাংশের হাত আরও কিছুটা বাড়বে।

আর এক নির্বাচনী আধিকারিক সুদীপ জৈন জানান, মাও অধ্যুষিত এই কেন্দ্রে ভোটদান নির্বিঘ্নেই হয়েছে। মাও হানার আতঙ্ক পিছনে ফেলে মানুষ এসেছেন ভোটকেন্দ্র।  তার মধ্যে ১০ টি আসনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়ে যায় বিকেল তিনটের মধ্যে। সকলের নজর ছিল রাজনন্দগাঁও কেন্দ্রের দিকে। এই কেন্দ্র থেকে লড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী রমন সিং। তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী অটলবিহারী বাজপেয়ীর ভাইঝি করুণা শুক্লা। সেইসঙ্গে ভোট বয়কটের ডাক দিয়েছিল মাওবাদীরা।
এদিকে ভোটের দিন দফায় দফায় গুলির লড়াই চলে মাওবাদীদের সঙ্গে। ভোটগ্রহণ চলাকালীন ছত্তিশগড়ের বীজপুরে নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে মাওবাদীদের গুলির লড়াই হয়। সেই গুলির লড়াইয়ে ভীতির সঞ্চার হয় ভোটারদের মধ্যে। আহত হয় দুই কোবরা বাহিনীর জওয়ান। পাঁচ মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানানো হলেও, তার সত্যতা মেলেনি। দুই মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। দুটি অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে।
সেইসঙ্গে সব নিয়ে টানটান উত্তেজনায় শেষ হয় নির্বাচন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com